মুখে চাপ দাড়ি গজানোর উপায় কি

অনেক পুরুষই চায় ‍মুখে চাপ দাড়ি রাখতে। তাছাড়া চাপ দাড়িতে যেকোন পুরুষকেই সুন্দর দেখায়। ইসলামিক ভিত্তি অনুসারে মুখে দাড়ি রাখা সুন্নত। তাছাড়া পুরুষদের মুখে দাড়ি রাখা মুসলমানদের একটি গুরুত্বপূর্ণ চিহ্ন। অনেকেই গুগলে সার্চ দিয়ে দ্রুতই দাড়ি বড় করার জন্য বা মুখে চাপ দাড়ি গজানোর উপায় নিয়ে।

আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ পোস্টে জানতে পারবেন মুখে চাপ দাড়ি গজানোর উপায় সম্পর্কে-

মুখে চাপ দাড়ি গজাতে আমলকির তেল

আমলকিতে ভিটামিন সি রয়েছে। আপনি চাইলে চুলের বৃদ্ধি, চুল ঘন, লম্বা ও মজবুত করতে আমলকির তেল ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও আমলকি প্রাচীনকাল থেকেই চুলের যত্নে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বর্তমানে নারীরা মাথার চুলের যত্নে আমলকি তেল ব্যবহার করেছেন।

আমলকীর তেল ব্যবহারের ফলেও চাপ দাড়ি গজাতে সাহায্য করে। সে জন্য ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মত আমলকীর তেল মুখে ম্যাসাজ করুন। তাপর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে নিন।

ক্লিনজার দিয়ে মুখে চাপ দাড়ি গজানোর উপায়

ক্লিনজার দিনে অন্তত ২বার মুখে দিয়ে ধুতে হবে। মুখ ধোয়ার সময় হালকা গরম পানি ব্যবহার করুন। এতে মুখের ত্বক পরিষ্কার হবে পাশাপাশি আপনার দাড়ির বৃদ্ধিকে বাড়িয়ে তুলবে।

ভালো ঘুম

দ্রুত মুখে চাপ দাড়ি গজানোর জন্য রাতে ভালো ঘুম হওয়া জরুরি। রাতে গভীর ঘুম ক্ষতিগ্রস্ত কোষকে পুনর্গঠন করতে সাহায্য করে।

ভিটামিন যুক্ত খাবার 

এমন কিছু ভিটামিন এবং মিনারেল রয়েছে যা আপনার মুখে দ্রুত দাড়ি গজাতে সাহায্য করে। সে জন্য নিয়মিত খাদ্যতালিকায় ভিটামিন এ, ই, সি এবং ই-সমৃদ্ধ খাবার রাখুন।

বায়োটিন যুক্ত খাবার তালিকা

বায়োটিন যুক্ত খাবার চুল গজাতে ভালো কাজ করে। যেসব খাবারে বায়োটি যুক্ত থাকে তা হলো-

  • কাঠবাদাম
  • চিনেবাদাম
  • আখরোট
  • সূর্যমুখী ফুলের বীজ
  • তিসির মতো খাবার বায়োটিনে সমৃদ্ধ থাকে

প্রতি দিন ১ মুঠো বাদাম খেলে শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে বায়োটিন যোগায়। এসব খাবার মূলত আপনার মাথার চুল বা দাড়ি গজাতে কাজে দেবে। 

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার

মাংস, ডিম, কলিজা, দুধ ইত্যাদি। এছাড়াও উদ্ভিজ্জ প্রোটিনের উৎস হতে পারে যেমন, ডাল, শাকসবজি, ব্রকলি, ফুলকপি ইত্যাদি। এগুলো খাবার প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার রাখুন। তাহলে দেখবেন আপনার মুখে দাড়ি দ্রুত গজাবে।

দাড়ি কাটার সময়

অনেকে তাড়াতাড়ি দাড়ি কাটার জন্য ব্যস্ত হয়ে ওঠেন। অনেকে ধারণা অনুযায়ী বার বার দাড়ি কাটলে দাড়ি ঘন হয়। আসলে এমনটি কিন্তু নয়। শুরুর দিকে দাড়ি যতটা বেড়ে যায় যাক। বাড়তে দিন। ৪ থেকে ৬ সপ্তাহ পরে ছাঁটুন।

মুখের যত্ন নিন

ভাল করে ঘষে ত্বকের উপর থেকে মৃত কোষ দূর করার চেষ্টা করুন। এর ফলে নতুন দাড়ি গজানোর প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হবে। অন্তত সকালে ও সন্ধ্যায় ১ বার করে গরম পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর ক্লিনজিং মিল্ক ব্যবহার করলে আরও ভাল। এর ফলে ছোট দাড়িগুলি বেরতে সুবিধে হবে।

ইউক্যালিপটাস তেল বা ক্রিম

ইউক্যালিপটাস দেওয়া আছে, এমন ক্রিম বা তেল দিয়ে ময়েশ্চারাইজার করলে দ্রুত দাড়ি গজাবে। ইউক্যালিপটাস দাড়ি বড় করতে সাহায্য করে। ইউক্যালিপটাস সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার দিয়ে নিয়মিত মুখের ত্বক ম্যাসাজ করুন।

মুখে চাপ দাড়ি গজাতে পেঁয়াজের রস

পেঁয়াজে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, সালফার এবং জিঙ্ক রয়েছে। সে জন্য আপনি পেঁয়াজের রস মুখের মাখলে মাখলে দাড়ি গজাতে সাহায্য করবে। 

হালকা গরম পানির ব্যবহার

পাতলা দাড়ি বৃদ্ধির জন্য মুখের ত্বক পরিষ্কার রাখা জরুরি। সেজন্য নিয়মিত হালকা গরম পানি দিয়ে ২ থেকে ৩ বার মুখ ধুয়ে নিতে হবে। এতে করে আপনার আরো নতুন দাড়ি গজানোর পাশাপাশি দাড়ির ঘনত্ব বৃদ্ধি পাবে।

নিয়মিত ম্যাসাজ করুন

যদি আপনার মুখে কোঁকড়ানো দাড়ি থাকে তাহলে সেগুলো ছেঁটে ফেলুন। কারণ মুখে কোঁকড়ানো দাড়ি থাকলে অন্য দাড়িগুলো বড় হতে বাঁধার সৃষ্টি হতে পারে।

এছাড়া দিনে অন্তত ২ বার ১০ মিনিট করে মুখে হালকা হাতে ম্যাসাজ করতে হবে। এতে মুখে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি হওয়ার পাশাপাশি দাড়ি দ্রুতই বেড়ে যাবে।

পরিশেষে মুখে চাপ দাড়ি গজাতে স্ক্রাব করুন

মুখের ত্বকে স্ক্রাব করলে বেশ উপকার পাওয়া যায়। সে জন্য সপ্তাহে কমপক্ষে ১বার মুখে স্ক্রাব করুন। স্ক্রাব করলে ত্বকের মৃত কোষ দূর হয়ে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে। এর ফলে মুখে নতুন দাড়ি গজাতে সাহায্য করবে।

সূত্র:- Right News BD

মন্তব্য করুন

bn_BDBengali