ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি দাম কত? ভালো ঘড়ি চেনার উপায়

বর্তমান সময়ে যেকোন বয়সের ছেলেরা সহ মেয়েরা ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি ব্যবহার করতে পছন্দ করেন। আর ঘড়িগুলোর দাম সাধ্যের মধ্যে রয়েছে বলেই ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এই ঘড়িগুলির দীর্ঘদিন ব্যবহারের ফলেও ভিতরে পানি প্রবেশ করতে পারে না। সে কারণেই ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি সবার কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

আপনি যদি ঘড়ি ব্যবহার করতে চান, তাহলে বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানির ভালো ব্র্যান্ডের ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে শুধু ব্যবহার করতে চাইলেই হবে না, এই ঘড়িগুলোর দাম কত জানতে হবে।

ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির দাম জানতে আমাদের এই পোস্ট থেকে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।

ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি দাম

আপনি ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি ৫০০ টাকার মধ্যে ক্রয় করতে পারবেন। এটি সবথেকে নিম্নমানের একটি বাজেট। তবে জেনে রাখুন নিম্নমানের বাজেট দিয়ে ওয়াটারপ্রুফ স্মার্ট ওয়াচ কখনোই ভালো ক্রয় করতে পারবেন না। তাই একটি ভালো ওয়াটারপ্রুফ ক্রয় করতে সর্বনিম্ন বাজেট রাখুন ৪০০০ থেকে ৫ হাজার টাকা।

তবে মেডিয়ম বাজেট দিয়ে ওয়াটারপ্রুফ স্মার্ট ওয়াচ ক্রয় করতে পারবেন। সে জন্য আপনাকে বাজেট রাখতে হবে ২০০০ থেকে ২৫০০ টাকা।

ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির নাম ও দাম

বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানির ওয়াটারপ্রুফ স্মার্ট ওয়াচ বা ঘড়ি দেখতে পারবেন। প্রত্যেকটি ঘড়ির দামের পার্থক্য তার আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্যের কারণে হয়ে থাকে। নিচে কয়েকটি আপনাদের জন্য ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির দাম উল্লেখ করা হলো। এছাড়াও আপনাদের ক্রয় করার সুবিধার্থে এর মডেল উল্লেখ করা হলো।

  • ‘Amazfit GTR Mini AMOLED GPS Smart Watch’ ঘড়িটির দাম ১০,৫০০ টাকা।
  • ‘HK9 Pro Smart Watch with Amoled Display’ ঘড়িটির দাম ৩,৩৫০ টাকা।
  • ‘Amazfit Bip S Fitness Smartwatch’ ঘড়িটির দাম ৬,৪৫০ টাকা।
  • ‘Xiaomi Mibro X1 Global Edition Smartwatch’ ঘড়িটির দাম ৪,৭৯৯ টাকা।
  • ‘Haylou Watch 2 Pro Smart Watch’ ঘড়িটির দাম ২,৬৫০ টাকা।
  • ‘S8 Ultra 4G Smart Watch’ ঘড়িটির দাম  ৪,৪০০ টাকা।
  • ‘HK8 Pro Max Ultra Smart Watch with Amoled Display’ ঘড়িটির দাম ৩,৩৫০ টাকা।

৫টি সেরা ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি

বর্তমানে ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি বাংলাদেশের বিভিন্ন কোম্পানি খুব ভালো মানের ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি তৈরি করে থাকেন। তবে এর মধ্যে সেরা পাঁচটি ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির মডেল সহ দাম নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। যা আপনাদের পরবর্তীতে ক্রয় করতে অনেকটা সহায়তা করবে।

  • GT20 এই মডেলের ঘড়ি দাম ১৭০০ টাকা।
  • K10 Single Sim এই মডেলের ঘড়ি দাম ১৫০০ টাকা।
  • Xiaomi IMOLAB W01 এই মডেলের ঘড়ি দাম ২৮০০ টাকা।
  • T500 Plus এই মডেলের ঘড়ি দাম ৯৫০ টাকা।
  • Colmi P28 Plus মডেলের এই ঘড়িটির দাম ২২০০ টাকা।

এছাড়া অনেকগুলো ঘড়ি রয়েছে। তবে এর মধ্যে থেকে যেকোনো পাঁচটি আপনাদের জন্য উল্লেখ করেছি।

মেয়েদের ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ি দাম

ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদের ব্যবহার করার মত বিভিন্ন ঘড়ি আপনি পেয়ে যাবেন। মেয়েদের জন্য ওয়াটারপ্রুফ ছাড়া ঘড়ি ১৫০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০০ টাকায় পাওয়া যায়। এবং হাজার রকমের ডিজাইনের ঘড়ি রয়েছে।

তাছাড়া ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির মধ্যে ৫০০ টাকা থেকে ৭০০ টাকায় কিনতে পারবেন। যদি দীর্ঘদিন মেয়াদি মেয়েদের ওয়াটার প্রুফ ঘড়ি কিনতে চান, সেক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বাজেট রাখুন ৯০০ টাকা। আর সর্বোচ্চ বাজেট ১২০০ টাকা থেকে ২০০০ টাকা পর্যন্ত। আশা করা যায় এই বাজেটগুলোর মধ্যে ভালো মানের ঘড়ি কিনতে পারবেন।

তবে সর্বোচ্চ বাজেট রাখতে পারবেন ৪০০০ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত। এইসব ঘড়িগুলোর বিভিন্ন দামের হয়ে থাকে। তাই নির্দিষ্ট দাম বলা সম্ভব নয়। এই ঘড়িটি বিভিন্ন ক্যাটাগরির হয়। যেমন-

  • মেটাল চেইন (Metal chain)
  • লেদার স্ট্র্যাপ (Leather strap)
  • অরিজিনাল ব্র্যান্ড (Original brand)
  • সিনথেটিক স্ট্র্যাপ (Synthetic strap)

অরিজিনাল রোলেক্স ঘড়ি চেনার উপায় বা ভালো ঘড়ি চেনার উপায়

ঘড়ি কেনার আগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, ঘড়ির ভেতরের যন্ত্রাংশ সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা তা যাচাই করে নেয়া। আপনি যদি ঘড়ি কিনতে যান, তার আগে অবশ্যই ঘড়িটি কানের কাছে নিয়ে খেয়াল রাখবেন যাতে ঘড়িটি টিকটিক শব্দ করছে কিনা। সবসময় মনে রাখতে হবে রোলেক্স উৎপাদিত ঘড়িগুলো স্বয়ংক্রিয় মুভমেন্টের মাধ্যমে চালিত।

সূত্র:- Right News BD

মন্তব্য করুন

bn_BDBengali